খবর

বঙ্গবন্ধু বিশ্ব রাজনীতির বরপুত্র- সালমান এফ রহমান

27 March, 2021
Source: The Daily Manabzamin

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা ঢাকা-১ আসনের এমপি সালমান এফ রহমান বলেছেন, মুক্তিযোদ্ধারা বাঙালি জাতির সূর্যসন্তান। তারা আমাদের জাতীয় জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। তাদের অবদান চিরস্মরণীয়। তাদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমরা বাংলাদেশ পেয়েছি। স্বাধীনতার জন্য বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের অবদানের জন্য আজকের বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু বিশ্ব রাজনীতির বরপুত্র । বিশ্বের নির্যাতিত-নিপীড়িত গণমানুষের স্বাধীকার আদায়ের আন্দোলনের মহানায়ক। নবাবগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ভার্চ্যুয়াল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

উপদেষ্টা আরও বলেন, বিংশ কিংবা একবিংশ শতাব্দীর রাজনৈতিক ইতিহাসে পৃথিবীতে ভাষা কিংবা স্বাধীকার আন্দোলনের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর বিকল্প নেই। বঙ্গবন্ধু ছাত্রবস্থা থেকে শাহাদাতের পূর্বপর্যন্ত ভাষার জন্য, গণমানুষের অধিকার আদায়ের জন্য আন্দোলন-সংগ্রাম করে গেছেন। জীবনের ৫৫ বছরের মধ্যে সাড়ে ১৩ বছর কারাগারে কাটিয়েছেন। দু’বার ফাঁসির মঞ্চে গেছেন। নিজের কিংবা পরিবারের কথা ভাবেননি। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হতো না। তাই বঙ্গবন্ধু ছাড়া বাংলাদেশের অস্তিত্ব কল্পনা করা যায় না। তার ৭ই মার্চের ভাষণ অনবদ্য দলিল, যা গিনেস বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ড। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী আর স্বাধীনতা সুবর্ণ জয়ন্তী আমাদের জাতীয় জীবনে অবিচ্ছেদ্য অংশ। নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচএম সালাউদ্দিন মনজুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সালমান এফ রহমান আরও বলেন, বাংলাদেশের মানুষের ইতিহাস অহঙ্কার করার মতো। আজকের দিনে আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে শপথ নিতে হবে যেন কোনো অপশক্তি মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে না পারে। এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী পড়ার আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বলেন, আমি দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলাকে বাংলাদেশের উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করতে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এ ব্যাপারে আপনাদের সহযোগিতা কামনা করছি।

পরে তার পক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা প্রদান করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সাবেক গণপরিষদ সদস্য আবু মো. সুবিদ আলী টিপু, সাবেক এমপি খন্দকার হারুন অর রশিদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আবু বকর সিদ্দিক আবু। এর আগে সালমান এফ রহমানের পক্ষে নবাবগঞ্জ উপজেলা কমপ্লেক্স চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ নাসিরউদ্দিন আহমেদ ঝিলু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচএম সালাউদ্দিন মনজু, সহকারী কমিশনার (ভূূমি) রাজিবুল ইসলাম, নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম শেখ প্রমুখ। আওয়ামী লীগের পক্ষে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মিজানুর রহমান ভূঁইয়া। তার সঙ্গে ছিলেন নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন জালাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক দেওয়ান আওলাদ হোসেন, ড. এডভোকেট শাফিল উদ্দিন মিয়া, ইঞ্জিনিয়ার আরিফুর রহমান সিকদার, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, নবাবগঞ্জ থানা পুলিশ, আনসার ব্যাটালিয়ন, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ, মহিলা লীগ, দোহার-নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজ প্রভৃতি। নবাবগঞ্জ সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজ মাঠে মুক্তিযোদ্ধা ও বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের উপস্থিতিতে কুজকাওয়াজ, শারীরিক কসরত, সালাম গ্রহণ করা হয়। এ সময় বক্তব্য রাখেন ও সালাম গ্রহণ করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ নাসিরউদ্দিন আহমেদ ঝিলু ও নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচএম সালাউদ্দিন মনজু। উপস্থিত ছিলেন- নবাবগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আবু বকর সিদ্দিক আবু ও নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম শেখ।