খবর

চামড়ায় ব্যবস্থা না নিলে দশগুন খারাপ অবস্থা হবে: সালমান এফ রহমান

22 June, 2020
Source: The Daily Inqilab

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেছেন, ২০১৭ সাল পর্যন্ত হাজারীবাগে থাকাকালীন চামড়াশিল্প অনেক ভালো অবস্থানে ছিল। ২০১৭ সালে তাদের উপযোগী না করেই আমরা গায়ের জোরে ধাক্কা দিয়ে তাদেরকে সাভারে পাঠিয়ে দিয়েছি। এতে করে দেশিয় এ শিল্পে ধ্বস নেমেছে।

চামড়া শিল্পের উন্নয়নে সুপারিশ প্রদান ও কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন টাস্কফোর্সের ২য় সভায় আজ সোমবার(২২ জুন) তিনি এসব কথা বলেন। শিল্পমন্ত্রীর সভাপতিত্বে সভাটি অনলাইনে জুমের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী এবং শিল্প প্রতিমন্ত্রী সভায় অংশগ্রহণ করেন। বাণিজ্যমন্ত্রী উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও অসুস্থতার কারণে যুক্ত হতে পারেননি।

সালমান এফ রহমান বলেন, চামড়া শিল্পের ব্যবসায়ীদের সাভারে যাওয়ার জন্য দুটি গুরুত্বপূর্ণ চাওয়া ছিল। এর মধ্যে একটি হচ্ছে, তাদের সিইটিপি তৈরি করে দিতে হবে, যা এখন পর্যন্ত সম্ভব হয়নি। আরেকটি ছিল ছোট ছোট ব্যবসায়ী যারা অন্য পণ্য তৈরি করত তাদেরকে ওখানে ব্যবস্থা করতে হবে। কিন্তু তার কোনটাই করা হয়নি। চামড়া শিল্প তৃতীয় সমস্যা যেটা হচ্ছে, ব্যাংকাররা বলছেন প্রতিবছর ঈদ আসলে তাদেরকে ব্যাংক লোন দিয়ে সহযোগিতা করা হয়। কিন্তু তারা পূর্বের লোনগুলি পরিশোধ করে না। এখানেও সমস্যা হচ্ছে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ব্যাংকিং লেনদেনে ভালো ছিল। কিন্তু সাভার যাওয়ার পর থেকে অর্থাৎ আমরা যখন গায়ের জোরে তাদেরকে সাভারে পাঠিয়ে দিলাম, এরপর থেকে তাদের ব্যাংক লোন গুলো আর নিয়মিত নেই। তারা প্রতিনিয়ত খেলাপি হয়েছেন। এছাড়া হাজারীবাগের জমিগুলো নিয়েও আছে নানা সমস্যা। সালমান এফ রহমান বলেন, এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে সরকারি ব্যাংকগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ চামড়াশিল্পের ব্যবসায়ীদের একত্রে নিয়ে একটা মিটিং করে সঠিক সিদ্ধান্তে আসা প্রয়োজন। তা নাহলে গত বছর চামড়া যে রকম রাস্তায় ফেলে দেয়া হয়েছে, এ বছর তার চেয়ে আরো দশ খারাপ অবস্থা হবে।