খবর

দেশে ৮০টি ইকোনমিক জোন করা হবে: সালমান এফ রহমান


সাতক্ষীরাসহ সারাদেশে ৮০টি অ্যাগ্রোবেজড ইকোনোমিক জোন প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এমপি।

সোমবার দুপুরে সাতক্ষীরা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পাঠাগার ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি প্রতিবন্ধী স্কুল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সালমান এফ রহমান আরো বলেন, ইতোমধ্যে সারাদেশে ৮০টি ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়েছে। সাতক্ষীরায়ও ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠার প্রয়োজন। এই জোন প্রতিষ্ঠায় ২০০ থেকে ৩০০ একর জমির প্রয়োজন হয়। আমি জেলা প্রশাসকের কাছ থেকে জেনেছি, জমির কোন সমস্যা নেই। আর সেকারণেই তিনি এটি প্রতিষ্ঠার জন্য সকল ব্যবস্থার আশ্বাস দেন।

তিনি আরো বলেন, সাতক্ষীরার প্রতি আমার আলাদা টান রয়েছে। স্বাধীনতার পর পাট, চিংড়ি- এগুলোর বাইরে কি কি রপ্তানি করা যায় তা নিয়ে চিন্তা করতেন বঙ্গবন্ধু। একপর্যায়ে তিনি আমাকে ডেকে বললেন সাতক্ষীরার মধু রপ্তানি করো। তাই সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি যখনই বলেছেন, আমি তখনই সাতক্ষীরায় আসতে রাজি হয়েছি।

এ সময় তিনি মুন্সিগঞ্জে পর্যটন কেন্দ্র স্থাপন ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি প্রতিবন্ধী স্কুল এমপিওকরণের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীকে অনুরোধ করার আশ্বাস দেন।

অনুষ্ঠানে সাতক্ষীরা-২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি সাতক্ষীরা পৌরসভাকে সিটি করপোরেশনের উন্নীতকরণ ও সাতক্ষীরায় বিদ্যুৎ প্লান্ট স্থাপনের দাবি জানালে তার প্রেক্ষিতে সালমান এফ রহমান বলেন, সাতক্ষীরা পৌরসভা আসলে অনেক বড় হয়েছে। এলজিইডিতে কথা বলে সাতক্ষীরাকে সিটি করপোরেশন করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

এছাড়া সাতক্ষীরায় যদি বিশেষ অর্থনৈতিক এলাকা তৈরি হয়, তার সঙ্গে এমনিতেই বিদ্যুৎ প্লান্ট তৈরি হবে। তারপরও যদি বিদ্যুতের ঘাটতি থাকে তাহলে আলাদা বিদ্যুৎ প্লান্ট তৈরির কথা ভাববো। এ সময় সালমান এফ রহমান স্কুল এবং লাইব্রেরিকে ১০ লাখ টাকা অনুদান প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাতক্ষীরা-২ আসনের সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল, সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ইলতুৎমিশ প্রমুখ।

পরে অতিথিবৃন্দ বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পাঠাগার ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর মোস্তাক আহমেদ রবি প্রতিবন্ধী স্কুল উদ্বোধন করেন এবং মোনাজাতে অংশ নেন।