খবর

‘মিড ও লোয়ার লেভেলে সিরিয়াস প্রবলেম রয়েছে’

3 February, 2019
Source: barta24.com (Online news portal)

মিড লেভেল এবং লোয়ার লেভেলে সিরিয়াস প্রবলেম রয়েছে। এই দুর্নীতিকে অবহেলা করলে হবে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

রোববার (৩ ফেব্রুয়ারি) ওয়েস্টিন হোটেলে এফবিসিসিআই আয়োজিত ‘বিদ্যুৎ উৎপাদনে অভাবনীয় সাফল্য গতিশীল প্রবৃদ্ধি অর্জনে বিদ্যুতের সর্বোত্তম ব্যবহার’ শীৰ্ষক আলোচনা অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন জিরো টলারেন্স দুর্নীতি, আমাদের ইশতেহারেও জিরো টলারেন্স দুর্নীতি বলা হয়েছে। এটা যেকোনোভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে। সরকারি কর্মচারীদের যে হারে বেতন-ভাতা বাড়ানো হয়েছে এরপর আর কোনো কথা থাকতে পারে না।

সালমান এফ রহমান বলেন, বাংলাদেশের আজকের যে অর্জন দশ বছর আগে কেউ বললে আমি বিশ্বাস করতাম না। এই অর্জনের পেছনে মূল কারণ হচ্ছে বিদ্যুৎ।

ব্যাংক ঋণে সুদের হার উচ্চ প্রসঙ্গে বলেন, ব্যাডলোড একটি সমস্যা, এর সঙ্গে স্ট্রাকচারাল সমস্যা হচ্ছে সেভিংসে রেট।

বাংলাদেশ ব্যাংক ও অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে। খুব শিগগিরই এ বিষয়ে একটি ঘোষণা আসবে। যাতে ব্যাড লোন কমিয়ে আনা যায়।

ভ্যাট নিয়ে কথা অনেক কথা হয়েছে। গত নির্বাচনের আগে আমরা কেনো ভ্যাট চাচ্ছিলাম না। কোনো ব্যবসায়ী কিন্তু ভ্যাট আইনের বিরোধী না। আমরা বলেছিলাম মাল্টিপল রেট হতে হবে, এনবিআর বলেছিলো নো সিঙ্গেল রেট হবে। এখানেই আমাদের আপত্তি ছিলো।

যে কারণে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের পরে ভ্যাট আইন বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নেন। এখন অর্থমন্ত্রী বলেছেন মাল্টিপল হবে। আমরা যা চাচ্ছিলাম সেটা হয়ে গেছে। এই বাজেটের আগেই এটা পাস হবে। এই কথাটা বললাম এ জন্য যে সরকার কিন্তু বিনিয়োগ বান্ধব।

বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগে আমাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। আপনাদের বলছি, আপনারা বন্ধু-বান্ধবদের বলবেন, কারো কোনো সমস্যা হলে আমার কাছে আসবেন। আমি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলবো। এই সরকারের ৫ বছরে আমরা জিডিপি ডাবল ডিজিটে যেতে চাই। আপনাদের সঙ্গে নিয়ে।

বিদ্যুৎ বিভাগের মন্ত্রী ও সচিবের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনাদের এখানে সমস্যা সমাধানের বিশেষ ডেস্ক থাকতে পারে। কারণ একজন ব্যবসায়ী গেলেন চেয়ারম্যানের কাছে, তিনি পাঠালেন মেম্বরের কাছে, মেম্বর পাঠালেন ম্যানেজারের কাছে। এতে কিন্তু সমস্যাটা সামাধান হলো না।

ট্রেড লাইসেন্সের ফি নিয়ে প্রশ্ন তোলা হলে সালমান এফ রহমান বলেন, ৪ কোটি টিন রয়েছে। কিন্তু ট্যাক্স দেয় মাত্র ২৬ লাখ লোক। এটাও কিন্তু ভেবে দেখার প্রয়োজন রয়েছে।

এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে আলোচনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। বক্তব্য রাখেন বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব ড. আহমদ কায়কাউস, এনার্জিপ্যাক পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ুন রশিদ, ইউইসিএল (পাওয়ার), ইউনাইটেড গ্রুপের সিইও মেজবাহ উদ্দিন, টেকসই ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (স্রেডা) চেয়ারম্যান মোঃ হেলাল উদ্দিন, আরইবি চেয়ারম্যান জেনারেল (অব.) মঈন উদ্দিন, পিডিবি চেয়ারম্যান ইঞ্জিঃ খালেদ মাহমুদ প্রমুখ।